যে ৯টি কারণে নিয়মিত পেঁপে খাওয়া উচিত


papaya-seeds-uses.jpg

ডাঃ মাজহারুল হক ভূঞা সজীব

পেঁপে আমাদের দেশের খুবই পরিচিত একটি ফল বা সবজি। একে ফল বা সবজি দুটোই বলা যায়। কাঁচা অবস্থায় পেঁপে সবজি, ভর্তা, ভাজি বা রান্না করে খাওয়া যায়। আর পাকা পেঁপে তো অতীব রসালো ও সুস্বাদু ফল।  প্রতি ১০০ গ্রাম পেঁপেতে শর্করা ৭.২ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৩২ কিলোক্যালরি, ভিটামিন সি ৫৭ মিলিগ্রাম, সোডিয়াম ৬.০ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ৬৯ মিলিগ্রাম, খনিজ ০.৫ মিলিগ্রাম এবং ফ্যাট মাত্র ০.১ গ্রাম থাকে। এছাড়াও পেঁপে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন এ সমৃদ্ধ। এই উপাদানগুলো শুধুমাত্র শরীরের চাহিদাই মেটায় না, বরং রোগ প্রতিরোধেও অংশ নেয়। কাঁচা পেঁপেতে প্রচুর পরিমাণে পেপেইন নামক হজমকারী দ্রব্য থাকে। এটি অজীর্ণ রোগ, কৃমির সংক্রমণ, আলসার, ত্বকে ঘা ও ক্যান্সার নিরাময়ে কাজ করে। চলুন পেঁপের আরো কিছু উপকারী গুণ জেনে নেই-

১. ওজন নিয়ন্ত্রণে পেঁপে বেশ কার্যকর:  ওজন কমাতে খাদ্যতালিকায় পেঁপে রাখা যায়। পেঁপের ক্যালরির পরিমাণ খুব কম। এছাড়া পেঁপেতে থাকা আঁশ পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে সবজি হিসেবে পেঁপে অনন্য।

২. হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে: হজমশক্তি বাড়াতে এবং পেটের গোলযোগ এড়াতেও পেঁপে খাওয়া যায়। আমাশয় ও পেট ফাঁপা দূর করেতেও পেঁপে সাহায্য করে।

৩. চোখের দৃষ্টি ভালো রাখে: পেঁপের ভিটামিন এ চোখ ভালো রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া মায়োপিয়া বা ক্ষীণদৃষ্টি রোগ প্রতিরোধেও পেঁপের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য।

৪. রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে: দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পেঁপে জোরদার ভূমিকা রাখে । নিয়মিত পেঁপে খেলে সাধারণ রোগবালাই দূরে থাকে।

৫. ডায়াবেটিস রোগের পথ্য: ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য পেঁপে বেশ উপকারী ফল। ডায়াবেটিস রোগ এড়ানোর জন্যও পেঁপে খাওয়া যেতে পারে।

৬.তারুণ্য ধরে রাখে: পেঁপেতে থাকা বিভিন্ন উপাদান বয়সের ছাপ লুকিয়ে রাখে। নিয়মিত পেঁপে খেলে ত্বকে বলিরেখা পড়ার প্রবণতা কমে যায়।

৭. ক্যানসার প্রতিরোধ করে: পেঁপে কোলন ও প্রোস্টেট ক্যানসার প্রতিরোধ করে।

৮. হৃদরোগ থেকে রক্ষা করে: পেঁপে ভিটামিন এ, সি, ই এবং শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস এর চমৎকার উৎস। এই খাদ্য উপাদানগুলো কোলেস্টেরল প্রতিরোধে সাহায্য করে।  ফলে হার্ট এটাক ও স্ট্রোক এর ঝুঁকি কমে। এছাড়া পেঁপেতে থাকা আঁশ রক্তের উচ্চ কলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সহায়তা করে। এতে হৃদযন্ত্র ভালো থাকে।

৯. চুলের যত্নে বেশ কার্যকর: চুলের যত্নে পেঁপে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। টক দইয়ের সাথে পেঁপে মিশিয়ে চুলে মাখলে চুলের গোড়া শক্ত হয় ও চুল ঝলমলে হয়।

 

Advertisements

About সম্পাদক

সম্পাদক - ইসলামের আলো
This entry was posted in সুস্বাস্থ্য and tagged , . Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s