নিজেকে পরিবর্তনের পরিকল্পনা, বই কেনাকাটা ও কিছু উদ্যোগ


লিখেছেন-স্বপ্নচারী আব্দুল্লাহ । মুল লেখা এখানে


কয়েকটা ভাবনা ভাবাচ্ছিলো বছরের প্রথম দিনে, হয়ত সবাইকে নতুন বছরের চাওয়া-পাওয়া নিয়ে হইচই করতে দেখে। আমারো সবার মতন কী পেলাম কী চাই টাইপের ভাবনা কাজ করলো। পিছনে তাকিয়ে দেখি, অনেক ক্ষয়, ভুল, পাপ। সামনে অজানা জীবন, অনেক কাজ, আবশ্যক মৃত্যু। দুনিয়াতে এসে কেবল মৃত্যুটাই আমার নিশ্চিত ছিল, এরপরেও অনেক কিছু পেয়েছি, পাচ্ছি। একদিন মালাকুল মাওত এসে হাজির হবেন, জানিনা আমার রূহ কি পানির জগ থেকে পানি ঝরার মতন ঝরে পড়বে, নাকি কাটাভরা গাছের শাখা ভেজা উলের মধ্য দিয়ে টেনে বের করার মতন যন্ত্রণা দিয়ে বের হবে। আমি কি পারব মুনকার-নাকীরের প্রশ্নের জবাব দিতে, যার উত্তরের সঠিক হবার ঘোষণা দিবেন আমাদের মালিক, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা, নাকি ক্ষুব্ধ ফেরেশতাদের হাতুড়ির আঘাতে ধূলো হয়ে আবার আগের রূপে ফিরে আসব। ভাবলে কেমন যেন লাগে। কবরের অন্ধকারে কি আলো হিসেবে পাবো আমাদের ভালো কাজগুলোকে? নাকি খারাপ কাজগুলোর দুর্গন্ধময় উপস্থিতি কিয়ামাত পর্যন্ত আরো যন্ত্রণার সঙ্গী হবে। আল্লাহ আমাদেরকে সমস্ত মৃত্যু-কবর-কিয়ামাতের মুসিবাত থেকে ক্ষমা করুন। আল্লাহুম্মা ইন্নি আউযুবিকা মিন ফিতনাতিল মাহইয়া-ই ওয়াল মামাত’
দুনিয়াতে যতদিন বেঁচে থাকব, আপন কাজে নিপুণ হতে হবে। ছাত্র হিসেবে নিয়মিত, আদর্শ। অফিসের কাজে নিপুণ ও আদর্শ হতে হবে। কথা দিয়ে কথা রাখতে হবে, কাজগুলো নিপুণতায় ভরা সুন্দর করে করতে হবে — মুসলিমের দায়িত্বই তো অমন। আখিরাতের জীবনের জন্য ঈমানের জ্ঞান অর্জন করতে হবে, নিজেকে ও পরিবারকে জাহান্নামের আগুণ থেকে বাঁচাতে হবে। সমাজে শান্তি ছড়াতে নিজেকেও শান্তির উপকরণ হয়ে সবার উপকার করতে হবে। এতসব কিছুর মূলে দরকার আলোকিত হৃদয় ও সেই আলোর উৎস হিসেবে জ্ঞান। তাই কিছু জিনিস ঠিক করলাম, নিয়মিত করতে হবে।
(১) কুরআন পড়বো নিয়মিত, প্রতিদিন অন্তত কয়েকটা আয়াত এবং তার তাফসীর। কমপক্ষে অর্থ, যেন নামাজে দাঁড়িয়ে সূরাগুলো বুঝে বুঝে পড়তে পারি। আল্লাহর সামনে আমরা প্রতিদিন যেই কয়বার দাঁড়াই, যেন সঠিক অর্থ জেনে পড়ি তাসবীহ ও সূরাগুলো। এতে নামাজে মনোযোগ গাঢ় হবে। নামাজ আমাদের জান্নাতের চাবি হবে, সবার প্রথম হিসেব হবে নামাজের। আর সুন্দর নামাজের জন্য কুরআন *সঠিক উচ্চারণে* এবং *অর্থসহ* জানা অপরিহার্য।

(২) একটা বইয়ের কথা বারবার বলি, মুসলিম হিসেবে আমরা যারা একদম নতুন তাদের উচিত রিয়াদুস সলিহীন বইটা অবশ্যই অবশ্যই কিনে ফেলা। এখানে বিষয়ভিত্তিক কুরআন ও হাদিসের সংকলন আছে। সমস্ত স্কলাররা ইমাম নববী (রহিমাহুল্লাহ) এর এই সংকলনকে অত্যন্ত পছন্দ করেন আর তারা রিকমেন্ড করেন। সময়ের অভাবে যদি তাফসির পড়া না হয়, হাদিস পড়ার সুযোগ না হয়, অন্তত দু’এক পাতা যেন রিয়াদুস সলিহীন পড়া হয়, অবশ্যই। ৪ খন্ডের রিয়াদুস সলিহীনের একটি খন্ডের দাম ১৫০ টাকার মতন। অমূল্য জ্ঞানের দাম এতই কম!

  • রিয়াদুস সলিহীন সম্পর্কে জানতে এবং কিছু হাদিস পড়তে চাইলে ব্লগটি থেকে পড়ুন http://riyadussoliheen.wordpress.com/about/

(৩) কুরআনুল কারীম একটা বিশাল গ্রন্থ। আমাদের মতন যারা এই মহান গ্রন্থে নতুনরূপে মুগ্ধ ও শেখার জগতেও নতুন, যাদের বুকে ইচ্ছা আছে, জ্ঞান নেই, তারা কীভাবে কুরআন পড়ব, এই নিয়ে উস্তাদ খুররম মুরাদ (রহিমাহুল্লাহ) সুন্দর বই লিখেছিলেন ‘way to Quran’ যার অনুবাদ কুরআন অধ্যয়ন সহায়িকা’ বাজারে পাওয়া যায় মাত্র ৬৫ টাকায়। কিনে ফেলা উচিত।

(৪) প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবন সম্পর্কে জানতে কিনে ফেলতে পারি,  ‘সীরাতে ইবনে হিশাম’ — ১৭০ টাকার মতন লেগেছিলো কিনতে। আখিরাতে একমাত্র যিনি আল্লাহর কাছে আমাদের জন্য শাফা’আত করতে পারবেন, তিনি এই মহান মানুষটি। তাকে না জানলে, না চিনলে কীভাবে ভালোবাসতে পারব? যার সম্পর্কে কিছু জানিনা, তাকে কি আদৌ ভালোবাসা সম্ভব? অথচ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে ভালোবাসা আমাদের ঈমানের অংশ। এই বইটা কিনে ফেলা উচিত।
(৫) আল্লাহ রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে যারা কাছে থেকে দেখে, আল্লাহর দ্বীনকে জীবন দিয়ে প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন, সেই মহান মানুষদের কাছ থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। আর সেগুলো জানতে কিনে ফেলতে পারি ‘আসহাবে রাসূলের জীবনকথা’ বইটি। এটিরও বেশ কয়টা খণ্ড আছে। প্রথম খন্ডের দাম পড়বে দেড়শ টাকার মতন।

(৬) একজন ঈমানদার আল্লাহর কাছে জান্নাতের আশা করতে পারেন। কিন্তু ঈমানের অবস্থা আমাদের দুর্বল। এই দুর্বল ঈমান কী জিনিস, কীভাবে তার কী করা যেতে পারে, সেই সম্পর্কে সুন্দর একটা বই আছে, মাত্র ৩০টাকায় পাবেন — ‘ঈমানী দুর্বলতা‘ , লিখেছেন শাইখ মুহাম্মাদ সালিহ আল মুনাজ্জিদ।

(৭)  প্রতিদিন পথে-ঘাটে অনেক সময় নষ্ট হয় আমাদের। আমরা যদি কিছু অডিও লেকচার শুনে ফেলতে পারি এমপিথ্রি দিয়ে, সময়টা ভালো কাজে লাগে। আমি দীর্ঘদিন যাবত এমন করেই শুনেছি। অন্তর নরম হয়, আল্লাহর স্মরণ হয়, আলোকিত মানুষদের আলাপগুলো এত বেশি সুন্দর তা ভাষায় প্রকাশের মতন না। ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটির কনটেন্টগুলো সাহায্য করতে পারে,

(৮) আত্মিক উন্নতির জন্য কিছু পড়াশোনা করা প্রয়োজন। উস্তাদ খুররম জাহ মুরাদের ‘ইন দা আর্লি আওয়ার্স’ গ্রন্থটি তরুণদের জন্য সাবলীল ভাষায় প্রকাশিত।

আরো কিছু আয়োজন
ক)  যারা কুরআনের দারস শুনতে চান তারা সূরা বাকারাহ শুনতে পারেন নুমান আলী খানের কাছে এই লিঙ্ক থেকে সবগুলো অডিও ক্লিপ ডাউনলোড করে : http://kalamullah.com/baqarah.html
খ)  বাইয়্যিনাহ ইনস্টিটিউটের আয়োজনে তিরিশ পারার সূরাগুলোর উপরে আলোচনার অডিও ডাউনলোড করতে পারবেন এই লিঙ্ক থেকে : http://www.kalamullah.com/juzz-amma.html আবার বলছি, যারা এই আলোচনা শুনেননি, তারা কল্পনা করতে পারবেন না কুরআনের উপরে আলোচনা কতটা উপভোগ্য আর অন্তর জুড়ানো হতে পারে।
গ) মৃত্যু এবং আখিরাতের যাত্রা সম্পর্কে ধারণা থাকা আমাদের উচিত। মৃত্যুর মূহুর্তগুলো কেমন হয়, ফেরেশতারা কীভাবে আসেন, কী করবেন তারা আমাদের রূহ নিয়ে, এরপর কবরে আমাদের যেই যাত্রা শুরু হলো কিয়ামাতের দিন অবধি সেই সময়টা কেমন হবে, তাতে কঠিন যন্ত্রণা থেকে রক্ষা পেতে কী কী করতে হবে সেইসব জানা খুবই প্রয়োজনীয়। তাই দয়া করে এই লিঙ্কে গিয়ে “THE HEREAFTER” সিরিজের অডিওগুলো প্রথম থেকে একটা দুইটা করে শুনতে থাকুন, অনন্য সাধারণ আলোচনা ও জ্ঞান। আল্লাহ হয়ত এর মাধ্যমে আপনার ঈমানকে উন্নত করে জীবনকে বদলে দিতে পারেন। ইমাম আনওয়ার আল আওলাকির অসাধারণ কাজ আখিরাতের উপরে আলোচনা ডাউনলোড করে শুনুন। http://kalamullah.com/anwar-alawlaki.html
ঘ) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনের উপরে সীরাহ আলোচনা’ ইমাম আওলাকির আলোচনা খুবই গভীর, প্রাণবন্ত। এই সম্পর্কে আরেকটু বেশি জানতে পড়তে পারেন এই লেখা  http://idream4life.blogspot.com/2012/11/blog-post_8.html
ঙ) সুন্দর কিছু কুরআন তিলাওয়াত শুনতে চাইলে এখানে দেখতে পারেন :

চ) অনলাইনে অসাধারণ সুন্দর কিছু আনন্দময় জ্ঞানের উৎস খুঁজে পেতে চাইলে পড়ুন : আমার পছন্দের কিছু ওয়েবসাইট তালিকা : http://idream4life.blogspot.com/2012/10/blog-post_13.html
ছ) এছাড়া, ইমাম আল গাজ্জালির (রাহিমাহুল্লাহ) ‘বিদায়াতুল হিদায়াহ’ বা ‘beginning of the guidance’ বইয়ের উপরে আলোচনা শুনতে চাইলে পড়তে পারেন এখান থেকে খুঁজে নিন ডাউনলোড লিঙ্ক http://idream4life.blogspot.com/2012/11/blog-post_13.html
জ) ইমাম ইমাম সুহাইব ওয়েবের দারসুল কুরআন: এখান থেকে খুঁজে নিন  http://www.suhaibwebb.com/tag/tafsir/  ইমাম সুহাইবের আরো কিছু আলোচনা শুনতে এখানে দেখতে পারেন
আকারে অনেক বড় হয়ে গেলো, কিন্তু কখনো কারো উপকারে আসতে পারে ভেবে দিলাম। আল্লাহ আমাদের প্রচেষ্টাগুলো কবুল করে নিন। আল্লাহ আমাদেরকে জ্ঞানে ও আমলে উন্নত করে দিন, আমাদেরকে তার সন্তুষ্টি লাভের যোগ্য করে দিন এবং দুনিয়ায় কল্যান-আখিরাতে মুক্তি দান করুন।

বই কেনাকাটা
আলহামদুলিল্লাহ গতকাল অনেকগুলো বই কিনেছি। প্রতি মাসেই একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার বই কিনে পড়ব আর উপহার দিব — এমন নিয়াত করেছিলাম কয়েক মাস আগে থেকে। গতকাল দারুণ কিছু বই দেখে অনেক বেশি কিনে ফেললাম। বাসায় ফেরার সময় ব্যাগটা ধরে রাখায় আঙ্গুল ব্যাথা হয়ে গিয়েছিলো!
১) রিয়াদুস সলিহীন : আমার কাছে এখন রিয়াদুস সলিহীন এর ৪টি খন্ডের সবগুলো খন্ড আছে আলহামদুলিল্লাহ। গতকালকে কিনেছি ৩য় খন্ড, যদিও পড়ছি প্রথম থেকেই ক্রমানুযায়ী। অত্যন্ত দরকারী এবং অবশ্যপাঠ্য বই, অবশ্যই কেনা উচিত।
২) সীরাতে ইবনে হিশাম : প্রিয় নবী সাল্ললাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনী পড়তে কিনেছিলাম ‘সীরাতে ইবনে হিশাম’। একশ সত্তর টাকার মতন মূল্য ছিল।
৩) আসহাবে রাসূলের জীবনকথা : সাহাবীদের জীবনী পড়তে “আসহাবে রাসূলের জীবনকথা” কিনেছি। অসাধারণ সিরিজ একটি। একেকটি খন্ডের দাম দেড়শ টাকার কাছাকাছি।
৪) আযকারে মাসনূনাহ : মাসনূন দু’আ নিয়ে ইমাম ইবনুল কায়্যিম (রাহিমাহুল্লাহ)-র একটি বই ‘আযকারে মাসনূনাহ’ কিনেছি। মকসুদুল মুমেনীন বা বেহেশতি জেওর টাইপের বই নিয়ে সময় নষ্ট না করে এই বই পড়া অধিকতর উপযুক্ত হবে মনে করে শেয়ার করা। বইয়ের দাম ছিল ৫০ টাকা। বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টারের কাঁটাবনের শো-রুমে পেয়েছি। দু’আর জন্য আরেকটা ভালো বই মনে হয়েছে হিসনুল মুসলিম।
৫) ইমাম ইবনে তাইমিয়ার বায়োগ্রাফি ও কর্মের উপরে ধারণা নিতে এবার একদম চিকন সাইজের একটা বই পেয়ে কিনে ফেললাম। বইটি একটি গবেষণামূলক প্রবন্ধের সঙ্কলন। ইমাম ইবনে তাইমিয়া এবং মুহাম্মদ ইবনে আবদুল ওয়াহাবের জীবন ও কর্ম একই বইতে পাওয়া যাচ্ছে। মূল্য ৭০টাকা।
৬) কুরআন অধ্যয়ন সহায়িকা : উস্তাদ খুররম মুরাদের (রাহিমাহুল্লাহ) ‘Way to Quran’ বইটার বাংলা অনুবাদ ‘কুরআন অধ্যয়ন সহায়িকা’ খুবই দারুণ বই, যেটা কীভাবে কুরআন পড়া যেতে পারে, সেই ব্যাপারে আইডিয়া দিয়েছে। এটার মূল্য ছিল ৬৫ টাকার মতন।
৭) আল কুরআনের শৈল্পিক সৌন্দর্য  : সাইয়্যেদ কুতুব (রাহিমাহুল্লাহ)-র লেখা অসাধারণ একটি বই। কুরআনকে তিনি কেমন সুন্দর করে খুঁজে পেয়েছেন সেটা উল্লেখ করেছেন বইটিতে। এছাড়া ‘কালজয়ী আদর্শ ইসলাম কিনলাম’।
৮) কবীরা গুনাহ : ইমাম আযযাহাবী (রাহিমাহুল্লাহ) এর লেখা বই কবীরা গুনাহ বইটিতে অনেক গুরুত্বপুর্ণ গুনাহ এর বিষয়ে আলাপ করা হয়েছে।
৯) আত তারগীব ওয়াত তারহীব : এই সহীহ এবং চমৎকার হাদিস সংকলন গ্রন্থটি কয়েকটি খন্ডে পাওয়া যায় বাজারে। অত্যন্ত জীবনধর্মী কিছু হাদিসের সংগ্রহ এটি।
অনেকদিন ঘুরে-টুরে এইসব মণি-মুক্তোর সন্ধান পেয়েছি, এত কম দামে দুনিয়ার সেরা জ্ঞান পাওয়া গেলেও আমরা হেলায় ফেলে দিই। এই তালিকা কারো কাজে আসতে পারে হয়ত এই আশায় শেয়ার করা। শুধুমাত্র এমন কিছু খোঁজ এত কষ্ট করে এতদিন পরে পেয়েছি বলেই আমি জানি এইটার মূল্য আমার কাছে কতখানি। হয়ত এরকম আরো অনেকেই আছেন, আল্লাহ তাদেরকে দ্রুত এই মহান মানুষদের কর্মগুলো দেখে অনন্ত জীবনের পাথেয় সংগ্রহ করতে অনুপ্রাণিত হবার তাওফিক দান করুন। আল্লাহ আমাদের অন্তরকে আলোকিত করুন, জ্ঞানের পথে এগিয়ে নিন যেন দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণ পাই।
পাদটীকা : প্রায় সবগুলো বই কাঁটাবন মসজিদ কমপ্লেক্স সংলগ্ন বইয়ের দোকানগুলো থেকে কিনেছি।

Advertisements

About সম্পাদক

সম্পাদক - ইসলামের আলো
This entry was posted in ইসলাম. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s